শিলিগুড়িতে পরাজয়কে রাজনৈতিক বিপর্যয় বলে বর্ণনা করলেন অশোক ভট্টাচার্য

২১শের বিধানসভা নির্বাচনের পর ২২শের পৌর নির্বাচনেও রাজ্যজুড়ে সবুজ অব্যাহত। সোমবার বিধাননগর, শিলিগুড়ি, চন্দননগর ও আসানসোল চারটি পৌরসভাতেই বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে জয়লাভ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ভাবে প্রথমবার শিলিগুড়ি পৌরসভা দখল করল তৃণমূল। ১৯৯৪ সালে শিলিগুড়ি পৌরসভা গঠন হওয়ার পর ২৭ বছরে এই প্রথমবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে শিলিগুড়ি পৌরসভা দখল করল তৃণমূল কংগ্রেস। সেইসঙ্গে তাদের দখলে থাকা একমাত্র পৌরসভাটিও হাতছাড়া হলো বামফ্রন্টের।

নজিরবিহীন এই ফলাফলকে রাজনৈতিক বিপর্যয় বলে অভিহিত করেছেন একদা শিলিগুড়ির মেয়র তথা শিলিগুড়ির বামফ্রন্ট নেতা অশোক ভট্টাচার্য।

শিলিগুড়ির ৬ নম্বর ওয়ার্ডে বামফ্রন্টের প্রার্থী ছিলেন অশোক ভট্টাচার্য প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের পরামর্শেই এই পৌর নির্বাচনে তিনি লড়াই করেছিলেন বলে খবর প্রকাশিত হয়। সেই ৬ নম্বর ওয়ার্ডেও ৫১০ ভোটে হেরে যান এই বাম নেতা।

পরাজয়ের পর ভোটের ফলাফল প্রসঙ্গে অশোক ভট্টাচার্য বলেন, “কেন এই পরাজয়, তা পর্যালোচনা না করে বলা সম্ভব নয়। এটা একটা রাজনৈতিক বিপর্যয় হয়েছে। দলের অন্দরে এই ফলাফলের বিষয়ে আলোচনা করবে বামেরা”।

পাশাপাশি অশোক ভট্টাচার্য আরও বলেন, “আমরা দেখেছি, আমাদের ভোটটা বিজেপিতে চলে গিয়েছিল। সেই ভোট আবারও আমাদের কাছে ফিরে আসবে বলে ভেবেছিলাম। কিন্তু তা আসেনি, পুরোটাই তৃণমূলে চলে গিয়েছে। আমরা এটা আশা করিনি”।

একইসঙ্গে বামেদের ভোট কিছুটা বেড়েছে বলেও দাবি করেন বর্ষীয়ান এই সিপিআইএম নেতা। তিনি বলেন, “বামেদের ভোট শতাংশের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই ভেঙে না পড়ে আবার উঠে দাঁড়াবে দল”।

অশোক ভট্টাচার্য আরও বলেন, “আমরা বাম রাজনীতি করি। আমরা আজীবন রাজনীতি করব। মৃত্যুর সময় পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে লাল পতাকা থাকবে”।

Also can read : শিলিগুড়িতে প্রথমবার জয়ী তৃণমূল কংগ্রেস, উচ্ছ্বসিত দলনেত্রী